ঢাকা, আজ বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০

আখাউড়ায় মেয়র ও যুবলীগের চেষ্টায় বদলে গেলো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র

প্রকাশ: ২০২০-০৬-১৫ ১৪:১৩:৪০ || আপডেট: ২০২০-০৬-১৫ ১৪:১৩:৪০

আখাউড়া প্রতিনিধি:
পাল্টে দেয়া হচ্ছে বিছানার চাদর। ঝাড়– হাতে ফ্লোর পরিস্কার করছেন মেয়র। সঙ্গে থাকা কারো হাতে ময়লা রাখার বস্তা। কেউ জীবানুনাশক ছিটিয়ে বেড়াচ্ছেন। কারো ব্যস্ততা সিলিং ফ্যান, বৈদ্যুতিক বাতি নতুন করে লাগানোর কাজে। কেউ করছেন মেরামত। আগাছা পরিস্কারের কাজও চলছে যথারীতি। এভাবে ঘন্টা দু’য়েকের চেষ্টায় বদলে গেলো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিত্র।

উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে সোমবার ১৫(জুন)সকালে হাসপাতালটিতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানোর পর যেন প্রাণ ফিরে পাওয়ার অবস্থা।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজলের নেতৃত্বে অর্ধশত নেতা-কর্মী সকাল সোয়া ১০টার দিকে পরিচ্ছন্নতার কাজে নামেন। প্রথমেই তারা রোগীদের ওয়ার্ডের ফ্লোর ও টয়লেট পরিস্কার করেন। সেখানে ২৪ টি নতুন বিছানার চাদর, তিনটি সিলিং ফ্যান ও ১৫ টি নতুন লাইট নেয়া হয়। পরে হাসপাতালের নতুন ভবন ও আশেপাশেও পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হয়।
জেলা পরিষদ সদস্য মো. আতাউর রহমান নাজিম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. আব্দুল মমিন বাবুল, দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জালাল উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য দীপক কুমার ঘোষ, পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. মনির খান, আবু কাউছার ভূইয়া , পৌর যুবলীগ নেতা জুয়েল রানা, মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ এতে অংশ নেন। এ হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএফপিও) ডা. রাশেদুর রহমান, আবাসিক মেডিকেল অফিসার শ্যামল কুমার ভৌমিকসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. মনির খান বলেন, ‘আইনমন্ত্রীর নির্দেশে করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকেই আমরা মানুষের সেবা করে যাচ্ছি। এরই অংশ হিসেবে আমাদের এ ধরণের উদ্যোগ। আমরা এটা অব্যাহত রাখবো আশা করি।’

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল বলেন, ‘মূলত মন্ত্রী মহোদয়ই এ বিষয়ে আমাদেরকে নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই মোতাবেক আমরা কাজ করেছি। এখন থেকে প্রতি মাসেই হাসপাতালে পরিচ্ছন্নতার কাজটি করবে যুবলীগ। এছাড়া নতুন ভবনের কার্যক্রম শুরুসহ এক্সরে মেশিন, দাঁতের মেশিন চালুর বিষয়েও মন্ত্রী বিষয়ে কথা বলবো।