ঢাকা, আজ শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

মানুষ স্বার্থপর হয়ে আনন্দ পায়ঃ রাসেল উদ্দিন

প্রকাশ: ২০২১-০৮-০৮ ০৩:০৯:২৮ || আপডেট: ২০২১-০৮-০৮ ০৩:০৯:২৮

চরমভাবে কারো কাছে ঠকে যাওয়ার পর দু’একবার আত্মহত্যার চিন্তা মাথায় আসে… সমস্ত পৃথিবী গোল্লায় যাক তাতে “আমার কিচ্ছু আসে যায়না” এমন একটা ভাব তৈরি হয়। দু’একবেলা না খেয়ে নিজেকে কষ্ট দিয়ে নব্য দেবদাস মনে হয় নিজেকে। ইমোশনাল ভিডিও দেখে হাউমাউ করে কেঁদে দিতে ইচ্ছে করে।

রাত যায় ভোর হয়…. তারপর বিরক্তিভরা মন একটু একটু করে শীতল হয়ে আসে… সদ্য প্রেমিকের বাইকের পিছনে বসে সা করে চলে যাওয়া গোলাপী ঠোঁটের মেয়েটাকে ভালো লাগে…. তারপর লোকালবাসে হিজাবের আড়ালে বেরিয়ে থাকা কাজল চোখের মেয়েটার প্রেমে পড়ে যেতে ইচ্ছে করে।

কেউ ঠকিয়ে গেছে… কেউ বিশ্বাসঘাতকতা করেছে… এমন অসংখ্য বুকপোড়া যুক্তি থেকে মানুষ মুক্তি খোঁজে। মানুষ ভুলে যেতে ভালোবাসে হোক প্রেম কিংবা বিরহ। মানুষ প্রকৃত অর্থে মরে যাওয়ার চিন্তা করে নিজেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য… স্বার্থপর হয়ে মানুষ আনন্দ পায়।

ভণিতা করে কষ্টে আছি বলতে ভালোবাসে…. সিম্পেথি পাওয়ার লোভ— মানুষকে অভিনয় শেখায়… কেউ চলে যাওয়ার চেয়ে সে কতটুকু দুঃখী আর বিষন্নতায় জর্জরিত সেটা আড্ডায় প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করে।

“বিখ্যাত অভিনেতা টমহ্যাংস বলেছিলেন- আমি প্রথমবার ঠকে যাওয়ার পর সারারাত কেঁদেছিলাম। দ্বিতীয়বার ঠকে যাওয়ার পর নেশা করেছিলাম। তারপর আমি ঠকানোর গল্প বলে বন্ধুদের বিমোহিত করার চেষ্টা করতাম, ওরা আমাকে মনোযোগ দিয়ে শুনতো। বন্ধুদের মন খারাপ হয়ে উঠা আমাকে আনন্দ দিতো। আমি মূলত আনন্দিত হতে চাইতাম”!!

মনোযোগ প্রিয় মানুষ কাউকে ভালোবাসার চেয়ে নিজেকে গোপনে ভালোবাসে। ঠকে যাওয়ার গল্প শুনিয়ে আশেপাশের মনোযোগ পেতে ভালোবাসে। নতুন মানুষের সন্ধি করার তৎপরতায় বাউন্ডলে সেজে থাকতে ভালোবাসে। যত দুঃখের ভান… যত আয়োজন… সবকিছুর নিজের জন্য।

ভালো না থাকার কারণ হিসাবে সম্পর্ককে টেনে আনা কেবলই মানুষের বাহানা। সিগারেট ফুঁকতে ফুঁকতেও মানুষ অল্টারনেট ভালো থাকার পথ খোঁজে। মানুষের দেবালয়ে মানুষ নিজেই ঈশ্বর আবার নিজেই পূজারী।