ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১

চৌদ্দগ্রামে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে গৃহবধূর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, আটক ১

প্রকাশ: ২০২১-০৪-২১ ১০:০৮:৫৪ || আপডেট: ২০২১-০৪-২১ ১০:০৮:৫৪

 

মোঃ শাহীন আলম, চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বসতবাড়ির সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলায় গৃহবধু তিন্নি বেগম আহত হয়েছে। উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধুর শ^শুড় ছিদ্দিকুর রহমান বাদি হয়ে একই বাড়ির আবদুল মান্নান, তার ছেলে আবদুল বারেক ও বারেকের স্ত্রী রাশেদা বেগমকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ মঙ্গলবার রাতে আবদুল বারেককে আটক করে।

অভিযোগে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ছিদ্দিকুর রহমান গংয়ের সাথে বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে পাশ^বর্তী আবদুল মান্নান গংয়ের বিরোধ চলছিল। এনিয়ে আবদুল মান্নান গং প্রায়ই ছিদ্দিকুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের নির্যাতন করতো। রোববার বিকেলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আবদুল মান্নান, তার ছেলে আবদুল বারেক, তার স্ত্রী রাশেদা বেগম ঘরের সামনে গিয়ে ছিদ্দিকুর রহমানকে মারধর শুরু করে। তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে পুত্রবধু তিন্নি বেগমকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায় তারা। এতে তিন্নি বেগমের মাথায় কোপানোয় তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। এক পর্যায়ে তাকে শ^াসরোধে হত্যার উদ্দেশ্যে কাপড় টানা-হেছড়া করে শ্লীলতাহানি করে। শোর-চিৎকার শুনে পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা আহত তিন্নি বেগমকে উদ্ধার শেষে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে বুধবার চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই আবদুল মজিদ বলেন, ‘এ ঘটনায় আবদুল বারেক নামের একজনকে আটক করা হয়েছে’।