ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আবর্জনার দুর্গন্ধে বিপন্ন কুমিল্লার মহাসড়কের পরিবেশ

প্রকাশ: ২০২১-০১-২১ ১৩:১২:৩১ || আপডেট: ২০২১-০১-২১ ১৩:১২:৩১

শান্তনু হাসান খান(বিশেষ প্রতিনিধি)

জাতীয় প্রধান ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের একাধিক স্থানে প্রতিদিনই জমছে আবর্জনার স্তুপ। বিভিন্ন হোটেল-রেষ্টুরেন্ট,আবাসিক ভবন বা বাসা-বাড়ির ফেলা এসব পঁচা-গলা ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে হাজার হাজার যানবাহনের চালক ও যাত্রীসহ স্থানীয় পথচারীদের। বিষয়টি পরিবেশ অধিদপ্তরের হলেও কার্যকর কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার অবস্থান অনেকটা মধ্যবর্তীস্থানে । দুরপাল্লার যানবাহনগুলো কুমিল্লা অংশে মহাসড়কের দু’পাশে গড়ে উঠা অসংখ্য হোটেল-রেষ্টুরেন্ট’এ যাত্রাবিরতি করে থাকে। এ সময় যাত্রীরা খাবারসহ বিশ্রাম নিতে অভ্যস্ত। এসব হোটেলের নিজস্ব কোন ময়লা আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট কোন জায়গা না থাকায় খাবারের উচ্ছিষ্ট,পঁচা-বাসী বা পরিত্যক্ত অংশ হোটেল মালিক পক্ষের লোকজন নিজস্ব ভ্যান বা রিক্সায় করে সড়কের পাশে বিভিন্ন স্থানে ফেলে দিয়ে দায়িত্ব শেষ করেন। একইভাবে মহাসড়কের পাশে বা কাছাকাছি দুরত্বে থাকা বহুতল ভবনের মালিকরাও তাদের পরিত্যক্ত বিভিন্ন মালামালও,এমনকি মরা গবাদি পশুও একইভাবে মহাসড়কের পাশে যত্রতত্র ফেলছেন প্রতিনিয়ত।

আর এভাবেই প্রতিদিন মহাসড়কের পাশে থাকা কুমিল্লা অংশের শত শত হোটেল-রেষ্টুরেন্ট,বাসা-বাড়ি থেকে ফেলা ময়লা আবর্জনায় পরিবেশ দূষিত হয়ে উঠেছে। ময়লা-আবর্জনা মহাড়কের পাশজুড়ে ফেলায় এসব আবর্জনা পঁচে-গলে বহু স্থানে সড়কের উপর ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ছে হরদম। একইভাবে পঁচে-গলে যাওয়া আবর্জনা রাস্তার পাশের জমিতে গিয়ে ফসলও বিনষ্ট হচ্ছে।

মোট কথা মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে ফেলা ময়লা-আবর্জনায় বিপন্ন হয়ে উঠছে মহাসড়কসহ আশপাশের পরিবেশ। দিন দিন ময়লা আবর্জনা ফেলার পরিমান বাড়লেও পরিবেশ অধিদপ্তরের বিষয়টি নিয়ে কোন মাথা ব্যথা নেই তাদের। জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল সুত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, মহাসড়কের পাশে হোটেল-রেষ্টুরেন্ট চালু করতে হলে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র নিতে হয়।

এ অবস্থায় সংশ্লিষ্ট হোটেল বা রেষ্টুরেন্ট মালিক পক্ষের নিজস্ব ময়লা আবর্জনা বা বর্জ্য ফেলার স্থান না থাকার পরেও কি ভাবে অনুমতি দেওয়া হলো সেটা বোধগম্য হচ্ছেনা অনেকের। বর্তমানে মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ,চান্দিনা,বুড়িচংয়ের নিমসার,নাজিরাবাজার,আদর্শ সদরের নিশ্চিন্তপুর,আমতলী,আলেখারচর,সদর দক্ষিণের পদুয়ারবাজার,সুয়াগাজী ,চৌদ্দগ্রামের মিয়াবাজার,জগৎপুর,পৌরসভা এলাকাসহ আরো বেশ কিছুস্থানে প্রতিদিনই বিপুল পরিমান ময়লা-আবর্জনা ফেলছে এলাকাবাসী। এতে করে চরম অসহনীয় হয়ে উঠেছে পরিবেশ। এ অবস্থায় দেশের প্রধান জাতীয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ময়লা-আবর্জনাসহ পঁচা-বাসী,পরিত্যক্ত খাবার ফেলা বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ দাবী করছে যানবাহন চালকসহ যাত্রী ও পথচারীরা।