ওমরাহ হজ্ব করে গর্ভধারণি মাকে পিটিয়ে বাড়ি ছাড়া করলো সন্তানেরা !


abbas প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৪, ২০২৩, ৬:৫২ পূর্বাহ্ন /
ওমরাহ হজ্ব করে গর্ভধারণি মাকে পিটিয়ে বাড়ি ছাড়া করলো সন্তানেরা !

মো. আবু শাহেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চোখের পানি শুকিয়ে গেছে বাবা, এখন আর কাঁদতেও পারি না! কানেও কম শুনি। ওরা যখন গর্ভে আমার রক্ত চুষে খেয়েছে, দিন-রাত পেটে লাথি মেরেছে তখন আমি খোদার কাছে ফরিয়াদ জানিয়েছিলাম তারা যেন ভালো থাকে। এখনো তাই বলে যাচ্ছি।

নির্যাতিত বৃদ্ধা ৬৩ বছর বয়সী মহিলা খাতিজা বেগম বুকফাটা আর্তনাদে বলেন, আমি অনেক বছর শিক্ষকতা পেশায় ছিলাম। এখন একজন অসহায় মা। আমার বড় ছেলে সাইফুল নিজস্ব তিনতলা আলিশান বাড়িতে বউ বাচ্চা নিয়ে সুখে শান্তিতে বসবাস করে। আমার ঠাঁই হয়েছে বৃদ্ধাশ্রমে। কথা গুলো বলতেই গাল বেয়ে অঝোরে ঝরছে চোখের পানি! কান্না বিজড়িত কন্ঠে তিনি আরও বলেন, বাবা আমার অনেক বয়স হয়েছে। আমার ছেলে ও ছেলের বৌয়েরা আমাকে পাগল বানিয়ে পিটিয়ে ঘর থেকে বের করে দিয়েছে। আমি যদি সত্যিই পাগল হতাম তাহলে কিভাবে শিক্ষকতার পাশাপাশি তাদেরকে গর্ভধারণ করে ছিলাম। মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত, অথচ আমার পুত্রধনেরা সেই মাকে লাথি মেরে ঘর বের করে দিলো।

হাটহাজারী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কামালপাড়া এলাকার মৃত আবু হাসান চৌধুরীর দুই সন্তান- অ্যারোমা বিউটি পার্লারের স্বত্বাধিকারী সাইফুল হাসান চৌধুরী ও লাক্সারি বিউটি পার্লারের স্বত্বাধিকারী রাকিবুল হাসান চৌধুরী তাদের বৃদ্ধা মায়ের উপর দীর্ঘদিন ধরে অত্যাচার ও নির্যাতন করে আসছে। ঠিক মতো মাকে খাবার পর্যন্ত দিতো না। বেশির ভাগই না খেয়ে দিন পার করেছেন এ বৃদ্ধা।কিছুদিন আগে অভিযুক্ত সন্তান সাইফুল হাসান চৌধুরী ওমরাহ হজ্ব করে দেশে ফিরছেন। একপর্যায়ে মাকে পাগল বানিয়ে পিটিয়ে বাড়ি ছাড়া করলো সন্তানেরা। অবশেষে সেই মায়ের ঠাঁই হলো রাউজান বৃদ্ধাশ্রমে।