ঢাকা, আজ শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০

কুমিল্লার চান্দিনায় বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে শিশু ধর্ষণ

প্রকাশ: ২০২০-১১-০৪ ১২:০৮:৫৪ || আপডেট: ২০২০-১১-০৪ ১২:০৮:৫৪

চান্দিনা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার চান্দিনায় বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে মাদ্রাসায় পড়ুয়া ১১ বছর বয়সী কন্যা শিশুকে ধর্ষণ করেছে ৪৫ বছর বয়সী নবী হোসেন নামের এক ব্যক্তি।

আহত ওই শিশু কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি)তে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনার পর থেকে পুলিশ ধর্ষক নবীকে আটক করতে অভিযান চালাচ্ছে।

জানা যায়- কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মাইজখার গ্রামের এক কন্যা শিশুকে কুমিল্লা মহানগরীর একটি মহিলা মাদ্রাসায় ভর্তি করায় তার অভিভাবক। গত সোমবার (৩ নভেম্বর) বিকেলে ওই মাদ্রাসা ছাত্রী তার অপর এক বান্ধবীকে সাথে নিয়ে মাদ্রাসা থেকে বাড়ির আসার উদ্দেশ্যে কুমিল্লা শাসনগাছা বাস স্টেশন থেকে বাসে উঠে। ওই বাসে ছিলেন একই গ্রামের নবী হোসেন নামের এক কাঠ মিস্ত্রি।

বাসটি চান্দিনা স্টেশনে আসার পর ওই ছাত্রীকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে অপর বান্ধবীকে তার বাড়ি পাঠিয়ে দেন নবী হোসেন। চান্দিনা থেকে সিএনজি অটোরিক্সা যোগে ওই ছাত্রীকে বাড়ি পৌঁছে না দিয়ে সন্ধ্যায় গ্রামের একটি ধান ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে কাঠ মিস্ত্রি নবী। ধর্ষণের পর ওই শিশুকে বাড়ির কাছে নিয়ে ছেড়ে দিলে শিশুর অভিভাবকরা আহত অবস্থায় চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনেন। রাতেই তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি’তে ভর্তি করান।

আহত ওই শিশুর নানা নজরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান- আমার নাতনির শারীরিক অবস্থা ভাল না। চিকিৎসা চলছে। পুলিশকে সবকিছু অবহিত করেছি, সন্ধ্যায় চান্দিনা থানায় মামলা দায়ের করবো।

চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামস্উদ্দীন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান- শিশু মেয়েটিকে সোমবার রাতে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পর বিষয়টি জেনেছি। তারপর থেকে ঘটনার সাথে জড়িত নবী হোসেনকে আটক করতে আমাদের অভিযান চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।