ঢাকা, আজ শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২০

পৌরবাসির সহযোগিতা পেলে দেবিদ্বারকে পরিচ্ছন্ন জ্যামমুক্ত আধুনিক শহর উপহার দিতে চাই-শারমিন আক্তার

প্রকাশ: ২০২০-১০-২৪ ১২:০৮:৪২ || আপডেট: ২০২০-১০-২৪ ১২:০৯:৫৬

আবুল বাশার, দেবিদ্বার

নির্বাচিত হলে দেবিদ্বারকে কেমন শহর করতে চান? এক প্রশ্নের জবাবে ‘কুমিল্লা নিউজ’ কে একান্ত সাক্ষাৎকারে সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী শারমিন আক্তার বলেন পৌরবাসির সহযোগীতা পেলে দেবিদ্বারকে পরিচ্ছন্ন, জ্যাম মুক্ত আধুনিক শহর করা সম্ভব।

তিনি আরো বলেন আমরা অনেক পিছিয়ে আছি, এখন আমাদের এগিয়ে যাওয়ার সময়।বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আমাদের ঐক্যের যোগসূত্র হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, অসাম্প্রদায়িকতা, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ, সাম্য ও ন্যায়বিচার এবং উন্নয়ন ও অগ্রগতি।

আমি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করছি জাতীয় চার নেতা এবং মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ এবং ২ লাখ নির্যাতিত মা-বোনকে। বাংলা ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য যাঁরা অকাতরে জীবন দিয়েছেন সেই ভাষাশহীদদের প্রতি আমি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

প্রিয় দেবিদ্বারবাসী, আমাদের সামনে সবচেয়ে বড় দায়িত্ব শিক্ষিত তরুণদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা। তরুণদের কর্মসংস্থানের জন্য বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করা।
আমরা জানি, দুর্নীতি নিয়ে সমাজের সর্বস্তরে অস্বস্তি রয়েছে। দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের নিজেদের শোধরানোর আহ্বান জানাচ্ছি। আইনের কঠোর প্রয়োগের মাধ্যমে দুর্নীতি উচ্ছেদ করা হবে। আমরা তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার সম্প্রসারণের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুর্নীতির নির্মূল করার উদ্যোগ গ্রহণ করেবো। দুর্নীতি বন্ধে জনগণের অংশগ্রহণ জরুরি। আপনারা দেখেছেন আমদের সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করে ইতোমধ্যেই মাদক, জঙ্গি তৎপরতা এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে সফলতা অর্জন করেছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমরা একটি শান্তিপূর্ণ সমাজ চাই যেখানে হিংসা-বিদ্বেষ-হানাহানি থাকবে না। সকল ধর্ম-বর্ণ এবং সম্প্রদায়ের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারবেন। সকলে নিজ নিজ ধর্ম যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে পালন করতে পারবেন।
ইসলাম শান্তির ধর্ম। ইসলামে সন্ত্রাসের কোনো স্থান নেই। সমাজের সকলকে মাদকাসক্তি ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান গ্রহণের আহ্বান জানাচ্ছি। ধর্মীয় শিক্ষার প্রসারে আমাদের সরকার কার্যকর ব্যবস্থা নিচ্ছে। মাদ্রাসা শিক্ষাকে আধুনিকায়নের মাধ্যমে উৎপাদনমুখী করা হচ্ছে। কওমি মাদ্রাসার দাওয়ারে হাদিস ডিগ্রিকে মাস্টার্স ডিগ্রির সমমানের করা হয়েছে। সারা দেশে ৫৬০টি মসজিদ-কাম-ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

প্রিয় দেবিদ্বরবাসী, তরুণরাই দেশের ভবিষ্যৎ কর্ণধার। তারুণ্যের সৃষ্টিশীলতা, উদ্যম এবং শক্তির ওপর আমাদের পূর্ণ শ্রদ্ধা ও আস্থা রয়েছে। তারুণ্য মানেই বাংলা ভাষার জন্য আত্মদান, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, ’৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ, আসাদ-মতিউর, নূর হোসেনদের রক্তদান। তারুণ্য মানেই লাল-সবুজের পতাকা- আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি, তারুণ্য মানেই বাঙালি এবং বাংলাদেশ। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাতি মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন করেছিল। আমি রাজনীতি করছি শুধু জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য; এ দেবিদ্বারের মানুষের কল্যাণের জন্য। এ দেবিদ্বারের সাধারণ মানুষেরা যাতে ভালোভাবে বাঁচতে পারেন, উন্নত-সমৃদ্ধ জীবনের অধিকারী হতে পারেন- তা বাস্তবায়ন করাই আমার জীবনের একমাত্র লক্ষ্য। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বলেছিলেন : ‘মহৎ অর্জনের জন্য মহৎ ত্যাগের প্রয়োজন। ’ আমরা ত্যাগের পথ অনুসরণ করেই এগিয়ে যাচ্ছি। আমার বর্তমানকে উৎসর্গ করেছি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য। আমরা তরুণদের শক্তি, মেধা ও মননকে সোনার বাংলা গড়ার কাজে সম্পৃক্ত করব। আজকের তরুণরাই পারবে দেশকে উন্নতি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি আনতে।

প্রিয় দেবিদ্বার বাসি, নবীন-প্রবীণের সংমিশ্রণে আমরা আমাদের দেবিদ্বার গঠন কররো। প্রবীণদের অভিজ্ঞতা আর নবীনদের উদ্যম- এ দুইয়ের সমন্বয়ে আমরা আমাদের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি। আপনারা আমার ওপর আস্থা রেখে আমাকে আপনাদের রায় দিন, কথা দিচ্ছি আমি প্রাণপণ চেষ্টা করব সে আস্থার প্রতিদান দিতে। এজন্য দলমতনির্বিশেষে দেবিদ্বারের সকল নাগরিকের সমর্থন এবং সহযোগিতা চাই। আপনাদের সহযোগিতায় আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধা, দারিদ্র্য, নিরক্ষরতামুক্ত অসাম্প্রদায়িক সোনার দেবিদ্বার প্রতিষ্ঠা করব, ইনশা আল্লাহ। কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের ভাষায় বলতে চাই : ‘যতক্ষণ দেহে আছে প্রাণ/প্রাণপণে পৃথিবীর সরাব জঞ্জাল/ এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি-/নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার। ’

সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। মহান রব্বুল আলামিন আমাদের সহায় হোন।