ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

লালমাইয়ে শিশু শাহপরান হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন,মিশুক উদ্ধার, আটক-৪

প্রকাশ: ২০২০-১০-১৫ ০৮:১২:০৭ || আপডেট: ২০২০-১০-১৫ ০৮:১২:৪৫


গত ১২ সেপ্টেম্বর লালমাই থানাধীন বাগমরা দক্ষিণ ইউনিয়নের জয়নগরে ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে নিহত মিশুক গাড়ীর চালক শিশু ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র শাহপরান হত্যা মামলার আসামী নুর উদ্দীন নুরু, শহিদ উল্লাহ, গোলাপ হোসেন, নাছির উদ্দীন আটক ও মিশুক গাড়িটি তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় উদ্ধার করা হয় গতকাল ১৪ অক্টোবর লালমাই থানা পুলিশের তৎপরতার ফলে ক্লুলেস এ মামলার রহস্য উদঘাটন করা হয়।
এ সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলন পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।
উল্যেখ্য কুমিল্লা লালমাই উপজেলার জয়নগর ও নাগরীপাড়ার মধ্যকার ডাকাতিয়া নদীর উপর ব্রিজের পশ্চিম পাশে আনুমানিক ১৪ বছরের এক শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়,খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ঘিরে রেখে পরে লাশটি উদ্ধার করে লালমাই থানা পুলিশ।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ডাকাতিয়া নদীর নাগরীপাড়া দক্ষিন পাড়া ও জয়নগর সংলগ্ন ব্রিজে পশ্চিম পাশে এক ছেলের লাশ পরে থাকতে দেখেছে স্থানীয় এলাকাবাসী পরে থানায় খবর দেওয়া হলে লাশটি উদ্ধার করেছিল লালমাই থানা পুলিশ।
নিহত শাহ পরান লালমাই উপজেলা ভূলইন উত্তর ইউনিয়নের বেতাগাও গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে।
শাহ পরান হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন আজিম উল আহসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভীর সালেহীন ইমন পিপিএম, লালমাই থানা পুলিশ এর ভারপ্রাপ্ত অফিসার জনাব মোহাম্মদ আইয়ুব সহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।