ঢাকা, আজ সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০

কুমিল্লায় ডিবি পরিচয় দেয়া ৪ প্রতারক গ্রেফতার

প্রকাশ: ২০২০-০৯-২৩ ১৪:৫৯:৩২ || আপডেট: ২০২০-০৯-২৩ ১৪:৫৯:৩২

ডেস্ক রিপোর্টঃ

কুমিল্লায় ডিবি পরিচয় দেওয়া ৪ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে নগদ দেড় লক্ষ টাকা, একটি প্রাইভেটকার, একটি খেলনা পিস্তল, একটি হ্যান্ডকাফ, একটি ওয়াকিটকি, ডিবির পোষাক ও একটি লাঠি উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লা পুলিশ সুপার কনফারেন্স রুমে সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম,বিপিএম (বার), পিপিএম।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্থ ও প্রশাসন আজিম উল আহসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল তানভীর সালেহীন ইমন, কুমিল্লা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ারুল আজিমসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, শেরপুর জেলার শ্রীবরদী থানার ধাতুয়া গ্রামের মৃত সাইদুর রহমানের ছেলে মোঃ সুমন মিয়া ,ভোলা জেলার তজুমুদ্দিন থানার শ্যাম্ভপুর গ্রামের শাহজাহান মিয়ার ছেলে মোঃ ইউসুফ (৫২) ( গাড়ি চালক) ,জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর থানার মানিকপাড়া গ্রামের মৃত আনোয়ারুলের ছেলে মোঃ আপেল (৩৩) এবং যশোর জেলার কোতয়ালী থানার জমজমপুর গ্রামের লুৎফুর রহমানের ছেলে মোঃ মনির (৪৫)।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, গত ১২ আগষ্ট দুপুরে মোঃ আবু হানিফ শামীম মুরাদনগরের কোম্পানিগঞ্জের ইসলামি ব্যাংক শাখা থেকে ১২ লক্ষ টাকা উত্তোলন করে সি এন জি যোগে দেবিদ্ধার যাওয়ার পথে কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কে দেবিদ্ধার পৌর এলাকার মহিলা কলেজের সামনে পৌছালে একটি প্রাইভেটকার সি এন জির গতিরোধ করে। এসময় প্রাইভেটকারে থাকা ৩জন ব্যাক্তি নেমে নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে সি এন জি থেকে আবু হানিফ শামীমকে নামিয়ে প্রাইভেটকারে উঠিয়ে হাত পা বেধেঁ মারধর করে টাকার ব্যাগটি নিয়ে ২ ঘন্টা পর বুড়িচংয়ের নাজিরাবাজার এলাকায় ফেলে চলে যায়। এ বিষয়ে ১৮ আগষ্ট দেবিদ্বার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে বিষয়টি আমার নজরে আসে। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে এ বিষয়টি তদারকি করি এবং জেলা গোয়েন্দা শাখার এল আইসি টিমকে ভূয়া ডিবি চক্রটিকে শনাক্ত পূর্বক গ্রেফতার করার জন্য নির্দেশ প্রদান করি। গতকাল ২২ সেপ্টেম্বর ঢাকা, সাভার ও গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এই ৪ প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ভূয়া ডিবি পরিচয়দানকারী ডাকাতগণ উল্লেখিত ঘটনাসহ গত ২১ সেপ্টেম্বর দাউদকান্দি গৌরীপুর এলাকা হতে একই কায়দায় বিকাশ ব্যবসায়ীর সাড়ে ৫ লক্ষ টাকা এবং গত ২১ জুলাই কুমিল্লা সদর দক্ষিণের পদুয়ারবাজার এলাকা হতে তৈয়ব হোসেনের নিকট হতে ৫ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা স্বীকার করে।

এছাড়াও ডাকাতগণ উল্লেখিত ঢাকা ও আশপাশ জেলার বিভিন্ন এলাকায় একই কায়দায় ছিনতাই করে মর্মে স্বীকার করে। এছাড়াও আসামীদের বিরোদ্ধে একাধিক মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে।