ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

চান্দিনায় “মাতৃভূমির” পঁচা মিষ্টি বিক্রি

প্রকাশ: ২০২০-০৭-২০ ১০:০২:১২ || আপডেট: ২০২০-০৭-২০ ১০:০৩:২০

চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

কুমিল্লার চান্দিনায় পঁচা ও বাসি মিষ্টি বিক্রি করে গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করছে ‘মাতৃভূমি’ নামে এক মিষ্টি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান।

দিনের পর দিন পঁচা মিষ্টি, দধি, রসমালাই ও মেয়াদ উত্তীর্ণ বিস্কুট বিক্রি করায় পর ক্রেতারা অভিযোগ করতে আসলে হতে হয় লাঞ্ছিত।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়- ‘দিশা’ নামে একটি সামাজিক এনজিও প্রতিষ্ঠান ‘মাতৃভূমি’ নামে মিষ্টি প্রস্তুতকারী একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। মাত্র কয়েক বছরের মধ্যে চান্দিনা, ময়নামতি সেনানিবাস এলাকা, বরুড়া ও কুমিল্লায় কয়েকটি শো-রুম এর পাশাপাশি দেবীদ্বারের বাগুর ও চান্দিনায় এলাকায় কারখানা গড়ে তোলেন।

ওই প্রতিষ্ঠানের মিষ্টি সুস্বাদু হলেও গুনগত মান রক্ষায় নূন্যতম চেষ্টা নেই তাদের। প্রতিটি শো-রুমে পঁচা ও বাসি মিষ্টি, দই, রসমালাই এবং মেয়াদোত্তীর্ণ হরেক রকম বিস্কুট সরবরাহ করছেন।

সম্প্রতি চান্দিনা পূর্ব বাজারের শো-রুম থেকে মিষ্টি কিনে প্রতারিত হয়েছেন এমন অনেক গ্রাহক। শনিবার (১৮ জুলাই) এক গ্রাহক পঁচা মিষ্টি কিনে বাসা থেকে শো-রুমে ফিরিয়ে দিতে আনলে হতে হয় হেনস্তা।

চান্দিনা বাজারের ব্যবসায়ী বোরহান উদ্দিন জানান- আমি ৩কেজি মিষ্টি কিনে বাসায় নেওয়ার পর আমার ভাগিনা মিষ্টি খেয়ে সাথে সাথে অসুস্থ হয়ে পড়ে। আমি মিষ্টিগুলো এনে ফিরত দিতে চাইলে তারা আমাকে অপদস্থ করে।

অপর এক ক্রেতা জুয়েল ওসমান জানান- তাদের যে কোন মিষ্টি কুমিল্লার শহরের খ্যাতনামা মিষ্টি দোকান থেকেও দাম বেশি থাকে। উপজেলা পর্যায়ের মিষ্টি দোকানগুলো থেকে তাদের মিষ্টির স্বাদ একটু ভিন্ন বিদায় আমি গত সপ্তাহে ২ কেজি ছানা কিনে নেই। কিন্তু ওই ছানা আমি আমার মেহমানদের দেওয়ার পর লজ্জা জনক পরিস্থিতির শিকার হই।

এ ব্যাপারে ‘মাতৃভূমি’ চান্দিনা শাখার দায়িত্বে থাকা জাহিদুল ইসলাম জানান- বোরহান ভাই যে মিষ্টিগুলো নিয়েছিল সেগুলো এক সপ্তাহ আগের। কিন্তু আমার শো-রুমে এসেছে শনিবার-ই।

এ ব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) স্নেহাশীষ দাশ জানান- গত এক সপ্তাহ পূর্বে তাদের মাধাইয়া-মহিচাইল রোডের একটি কারখানায় অভিযান চালিয়েছি। তবে শো-রুমগুলো থেকে প্রতারণা শিকার গ্রাহকদের অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।