ঢাকা, আজ মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০

কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে হত্যা, ঘাতক রাকিব গ্রেফতার

প্রকাশ: ২০২০-০৭-০৪ ১৫:১৩:৪৩ || আপডেট: ২০২০-০৭-০৪ ১৫:১৩:৪৩

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা)প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে সিমা আক্তার(১৬) নামে এক তরুণী কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। তরুনী সিমা আক্তার উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের নোয়াপাড়ায় অবস্থিত জেএমআই সিরিঞ্জ ফ্যাক্টরির শ্রমিক ও পাশ্ববর্তী বাবুচি আদর্শ গ্রামের ধন মিয়ার মেয়ে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে সিমা আক্তারের লাশ ফেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঘাতক সিএনজি অটোরিকশা চালক রাকিবুল হাসান রনিকে আটক শেষে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। আটককৃত রনি পৌর এলাকার নোয়াপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। শুক্রবার সন্ধ্যায় তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন থানার এসআই আবদুল্লাহ আল মামুন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে সিমা আক্তারকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল সিএনজি অটোরিকশা চালক রাকিবুল হাসান রনি। বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় উভয়পক্ষের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ রাকিবুল হাসান রনিকে সাবধান হতে বলে। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকালে তরুণী সিমা আক্তার প্রতিদিনের ন্যায় জেএমআই সিরিঞ্জ ফ্যাক্টরীর উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বের হয়। পূর্ব পরিকল্পিতভাবে রাকিবুল হাসান রনি ফ্যাক্টরীতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে সিমা আক্তারকে তাঁর সিএনজি অটোরিকশায় উঠায়।

কিন্তু রনি সিএনজি অটোরিকশাটি ফ্যাক্টরীর দিকে না নিয়ে কুমিল্লার দিকে চলে যায়। এক পর্যায়ে রনি তরুণী সিমা আক্তারকে কুপ্রস্তাব দিলে সে রাজি হয়নি। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে সিমা আক্তারকে হত্যা শেষে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মথুরাপুর এলাকায় লাশ ফেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনতা ধাওয়া করে রনিকে আটক করে হাইওয়ে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে।

খবর পেয়ে পুলিশ রনিকে গ্রেফতার ও লাশ উদ্ধার করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসে। সুরুতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন ও রনিকে চৌদ্দগ্রাম থানায় হস্তান্তর করা হয়।
মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়, নিহত তরুণী সিমার ডান চোখের উপরে কপালের মধ্যে গুরুতর রক্তাক্ত কাটা জখম এবং ডান ও বাম হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে থেতলানো মারাত্বক জখম করে হত্যা করা হয়েছে। ঘাতক রাকিবুল হাসান রনি এলাকায় বখাটে হিসেবে পরিচিত।

সে বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত রয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘অভিযুক্ত রাকিবুল হাসান রনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে হত্যার রহস্য জানা যাবে এবং ঘটনার সাথে অন্য কেউ জড়িত রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি’।