ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শুধুমাত্র মারা গেছেন ১১২ জন

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৭ ১৫:৩০:৪৬ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৭ ১৫:৩০:৪৬

অনলাইন ডেস্কঃ

গত এপ্রিল থেকে ২৭ জুন পর্যন্ত করোনা প্রাদুর্ভাবের এই সময়ে শুধুমাত্র কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন ১১২ জন।

এদের মধ্যে ১৫ জন করোনা সংক্রমণে সংক্রমিত ছিলেন। বাকিদের করোনা লক্ষণ উপসর্গ ছিলো এবং তাদের করোনা কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি। এদের অনেকে পরীক্ষার আগেই মারা গেছেন এবং তাদের পরে পরীক্ষা করা হয়।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৫ জন এবং লক্ষণ উপসর্গ নিয়ে ৯৭ জনের মৃত্যু তথ্য নিশ্চিত করেছে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল।

২৭ জুন দুপুরে জানা গেছে, গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন চার জন। এদের সবারই লক্ষণ উপসর্গ ছিলো। একজনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত ছিল। এরা হলেন করোনা আক্রান্ত কুমিল্লা শহরের কাপ্তার বাজারের হারুনুর রশিদ (৬৩), করোনার লক্ষণ উপসর্গ থাকা কুমিল্লার বিবির বাজারের তানভীর, সদর দক্ষিণের মোসলেম উদ্দিন (৬৫) ও বুড়িচংয়ের আলমগীর হোসেন (৬০)।

গত ২৪ ঘন্টায় কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নতুন ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন রোগী। আর হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন ১১৩ জন। এদের মধ্যে ৩৯ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত আছে এবং বাকি ৭৪ জনের লক্ষণ উপসর্গ রয়েছে।

কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় ২২ জন হাসপাতাল ছেড়ে গেছেন। কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান জানান, যারা লক্ষণ উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন তাঁদের পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের সম্পর্কে সিভিল সার্জন কার্যালয় ভালো বলতে পারবে। কারণ রিপোর্টগুলো তাদের কাছে যায়।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন ডা. নিয়াতুজ্জামান জানান, করোনা প্রাদর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এপর্যন্ত শনাক্তকৃত ৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ২ দশমিক ৬৪। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪১ দশমিক ৩৮।