ঢাকা, আজ মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২

শ্বশুরবাড়ির লোকের অত্যাচারে ফেসবুক লাইভে যুবকের আত্মহত্যা: গ্রেপ্তার ৪

প্রকাশ: ২০২২-০৩-২০ ১৩:২৫:৩৬ || আপডেট: ২০২২-০৩-২০ ১৩:২৫:৩৬

সাভার (ঢাকা ) প্রতিনিধি :

রংপুর জেলার পীরগাছার চাঞ্চল্যকর যুবকের ফেইসবুক লাইভে এসে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলার চার আসামীকে সাভার থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

১২টার দিকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

এর আগে গতকাল বিকেলে সাভারের হেমায়েতপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।
গত ১২ ফেব্রুয়ারি রংপুরের পীরগাছা থানায় ইমরোজ হোসেন রনি (৩০) নামে ওই যুবক ফেসবুক লাইভে এসে আত্মহত্যা করেন। এ সময় তিনি আত্মহত্যার জন্য স্ত্রী, শ্বশুর, চাচা শ্বশুর ও ভায়রা ভাই সহ শ্বশুরবাড়ির আরো কয়েকজনকে দায়ী করেন।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন, রংপুরের শাহজাহান ইসলাম বাদল (৫০), মো: ইমদাদুল হক (৩৫), শামীমা ইয়াসমিন সাথী (২৩) ও বিথী আক্তার (৩০)।

র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৪ বছর আগে পীরগাছা থানাধীন পশ্চিম হাগুরিয়ার হাশিম গ্রামের দিনমজুর বাদল মিয়ার মেয়ে শামীমা ইয়াসমিন সাথীকে ভালোবেসে বিয়ে করেন ভুক্তভোগী। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি ছেলের জন্ম হয়। তবে এরপরই তাদের মধ্যে মনোমালিন্য তৈরি হলে ৫ লাখ টাকা ও ভরনপোষণের জন্য অর্থ দাবি করেন তার স্ত্রী। একপর্যায়ে কাউকে না জানিয়ে স্ত্রী তার চাচা মুকুল মিয়ার বাড়িতে চলে যান। সেখানে স্ত্রীকে আনতে গেলে শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে অপমান-অপদস্ত করে। এ নিয়ে ভুক্তভোগী ফেসবুক লাইভে আসলে বিষয়টি ভাইরাল হয়। পরবর্তীতে এঘটনায় একটি আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা দায়ের হয়।

র‌্যাব-৪ এর সিপিসি-২ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান বলেন, ওই হত্যা প্ররোচনার সঙ্গে জড়িত আসামীরা ঢাকার সাভারে আত্মগোপনে রয়েছে এমন খবরের ভিত্তিতে গতকাল অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা আত্মহত্যার ঘটনায় প্ররোচনার সাথে সংশ্লিষ্টতার স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে। আজ আসামীদেরকে রংপুর জেলার পীরগাছা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।