ঢাকা, আজ মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১

চৌদ্দগ্রামে বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ নারী আহত

প্রকাশ: ২০২১-০৫-১৯ ১২:২৪:১৫ || আপডেট: ২০২১-০৫-১৯ ১২:২৪:১৫

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৪ নারী আহত হয়েছে। পৌর এলাকার দক্ষিণ ফালগুনকরা গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আহতরা হলেন; প্রবাসী জামাল উদ্দিনের মেয়ে ফারহানা আক্তার, বোন রুবিনা বেগম, ভাতিজি বিউটি আক্তার ও বিথি আক্তার। এ ঘটনায় প্রবাসী জামাল উদ্দিন বাদি হয়ে হামলাকারী রফিকুল ইসলাম রফিক, তাঁর স্ত্রী সীমা আক্তার, একই বাড়ির মোঃ আলী, অলি মিয়া ও তাঁর স্ত্রী কুলছুম আক্তারের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৬-৭ জনের নামে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

চৌদ্দগ্রাম থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, দীর্ঘদিন ধরে বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে রফিকুল ইসলামের সাথে প্রবাসী জামাল উদ্দিনের বিরোধ চলছিল। বিষয়টি বারবার মিমাংশার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় স্থানীয় লোকজন। সামাজিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মঙ্গলবার সার্ভেয়ার দ্বারা জায়গা পরিমাপ করা অবস্থায় রফিকুল ইসলাম রফিক তার খেয়াল খুশি মতো জায়গা পরিমাপ করতে বাধ্য করে। এতে আপত্তি করলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে অলি মিয়া, মোঃ আলী, সীমা আক্তার ও কুলছুম আক্তারসহ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে প্রবাসী জামাল উদ্দিনের উপর হামলা চালায়। হামলাকারীদের কবল থেকে জামাল উদ্দিনকে রক্ষা করতে তাঁর মেয়ে মোসাঃ ফারহানা আক্তার এগিয়ে গেলে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় কুপানোর চেষ্টা করলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে তাঁর ডান হাতের আঙুল রক্তাক্ত জখম হয়। এ ঘটনা দেখে জামাল উদ্দিনের বোন রুবিনা আক্তার, ভাতিজি বিউটি আক্তার ও বিথি আক্তার এগিয়ে গেলে তাদের উপরও হামলা করা হয়। হামলাকারীরা ৪টি স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়। এছাড়াও তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ভাংচুর করে ঘরের ১৫-২০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। এক পর্যায়ে জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নাম্বারে কল করলে চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পুলিশের উপস্থিতিতে স্থানীয় লোকজন আহত নারী রুবিনা আক্তার, ফারহানা আক্তার ও বিউটি আক্তারকে উদ্ধার শেষে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। নারীদের উপর হামলা করেও রফিকুল ইসলাম গং ক্ষ্যান্ত হয়নি, উল্টো প্রাণে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে বুধবার বিকেলে চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই আরিফ হোসেন বলেন, ‘তদন্ত শেষে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’।