ঢাকা, আজ শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১

মরুর বুকে ব্যাটে-বলে উত্তাপ ছড়ানো ক্রিকেটার আমিনুল ইসলাম পলাশ

প্রকাশ: ২০২১-০৩-২২ ১২:০৩:৩২ || আপডেট: ২০২১-০৩-২২ ১২:০৩:৩২

তাসীন তিহামী, তিতাস প্রতিনিধি :
কুমিল্লার তিতাস উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের নাগেরচর গ্রামের যুবক আমিনুল ইসলাম পলাশ। ছেলেবেলা থেকেই ক্রিকেটের প্রতি আসক্তি নিয়ে বেড়ে উঠা তার, কিন্তু একসময় দারিদ্র্যতার কাছে হার মেনে বুক ভরা স্বপ্ন নিয়ে জন্মভূমি ছেড়ে পাড়ি দেন ইট, পাথর আর মরুভূমির দেশ ওমানে। কখনো দিন মজুর, কখনো কোন কোম্পানিতে পার্টটাইম চাকুরী করে প্রবাসে কর্মময় জীবন শুরু করেন।

তবে যার ক্রিকেটের প্রতি দূর্বলতা আর ভালোবাসা, তাকে হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম থামিয়ে রাখতে পারেনি। খুঁজতে থাকে মরুর বুকে ক্রিকেটের পথ। একসময় খোঁজ মেলে বেঙ্গল টাইগার্স ক্রিকেট ক্লাবের। দলটিতে স্থান করে নেয়া সহজ ছিল না আমিনুলের।
কোটাভিত্তিক দলের অন্তর্ভুক্ত হয়ে দলটির কোঅর্ডিনেটরের ভুমিকা পালন করে একটা পর্যায় সুযোগ মেলে কোয়ালিফাইড ম্যাচ খেলার।
আর সে সুযোগ হাত ছাড়া করেনি আমিনুল।
নিজের জাত চেনাতে বেঁছে নেন কোয়ালিফাইড ম্যাচ, আমিনুলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের শৈল্পিক ক্রিকেট মরুর বুকে একের পর এক বাজিমাত করে দলের শক্ত অবস্থান তৈরি করে নেয়।

দীর্ঘ সময় বেঙ্গল টাইগার্স ক্রিকেটের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করার পর একসময় বেঙ্গল টাইগার্স ছেড়ে যোগ দেন এআর ক্রিকেট ক্লাব মাস্কাট দলে।
দায়িত্বশীল ব্যাটিং আর ব্যাক্তিগত পারফর্মে নিজেকে ছাড়িয়ে যান আমিনুল। ওমান বি লীগ, ওমান প্রিমিয়ার লীগ সহ অনেক জনপ্রিয় টি২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে তার পদচারণা ছিলো দাপিয়ে বেড়ানোর মতো।

মরুর বুকে দাপিয়ে বেড়ানো প্রতিভা একসময় ভিসা জটিলতায় স্বদেশে ফিরে আসেন। ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসা আর স্থানীয়দের অনুপ্রেরণায় দেশে ফিরে আবারও নতুন করে শুরু করেন ব্যাটে-বলে লড়াই। সুযোগ মিলছে বিভিন্ন অঞ্চলভিত্তিক ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলার। নিজেকে প্রস্তুত রাখতে নিয়মিত চালিয়ে যাচ্ছেন অনুশীলন। আজও আমিনুল স্বপ্ন দেখে জাতীয় দলে না হলেও জাতীয় পর্যায় নিজেকে মেলে ধরতে।