ঢাকা, আজ বুধবার, ২৩ জুন ২০২১

দেবিদ্বারে ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাবের সমর্থকদের হাতে জহিরুলের ৩ সমর্থক আহত

প্রকাশ: ২০২১-০২-০৬ ১৬:৫৫:৫৪ || আপডেট: ২০২১-০২-০৬ ১৬:৫৫:৫৪

আবুল বাশার,দেবিদ্বার

দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে শনিবার রাতে সোহরাব চেয়ারম্যানের সমর্থকদের হামলায় জহিরুল হক’র ৩ সমর্থক আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, উপজেলার জাফরগঞ্জ গ্রামের নজরুল ইসলাম’র পুত্র আঃ কাদের জিলানী(২৩), আঃ রৌফ’র পুত্র মেহেদী হাসান(২০) ও আবুল হাসেম’র পুত্র জাহিদ হাসান(২৩)। মারাত্মক আহত আঃ কাদের জিলানী ও মেহেদী হাসানকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এদিকে আঃ কাদের জিলানীর মৃত্যুর গুজবে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। জহিরুল হক’র বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা কুমিল্লা- সিলেট আঞ্চলিক মহা সড়কের জাফরগঞ্জ বাজার এলাকায় অবরোধ করে রাখে। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ ছুটে যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহতদের খোঁজ নিতে যাওয়া দেবিদ্বার থানার উপ-পরিদর্শক (এস,আই) মো. মাহবুবুর রহমান জানান, আমরা হামলার কারন অনুসন্ধান করছি, এ মুহুর্তে ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলতে পারবনা।

তবে হাসপাতালে আহত মেহেদী হাসান জানান, গত ২ ফেব্রয়ারী রাতে সোহরাব চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে জহিরুল হকের সমর্থকদের উপর হামলার ঘটনায় মারাত্মক আহত জহিরুল হকের সমর্থক কুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিবলু খানকে দেখে কুমিল্লা থেকে যাত্রীবাহি জনতা পরিবহনে বাড়ি ফেরার পথে জাফরগঞ্জ বাজারের অদুরে কুমিল্লা- সিলেট আঞ্চলিক মহা সড়কের দক্ষিণ নারায়নপুর সয়গুরা এলাকায় বাস অবরোধ করে আমাদের গাড়ি থেকে নামিয়ে রড, হকি ষ্টিক দিয়ে বেধরক পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। এসময় তারা বলতে থাকে তোরা আমাদের ভাই সোহরাব চেয়ারম্যাকে আঘাত করে কলিজায় আঘাত দিয়েছিস, তোদের এলাকা ছাড়া করব। আহত জিলানীর অবস্থা আশংকাজনক, তার মাথায় ও বাম চোখে মারাত্মক আঘাত পাওয়ার পর থেকেই সে অচেতন অবস্থায় রয়েছে। তাকে দ্রত কুমেক হাসপাতালে স্থানান্তরে ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (২ ফেব্রয়ারী) দিবাগত রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার ৮নং জাফরগঞ্জ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি মো. সোহরাব হোসেন ও সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী আ’লীগ নেতা জহিরুল হক’র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে সোহরাব চেয়ারম্যান ও সম্ভাব্য চেয়্যারম্যান প্রার্থী জহিরুল হক সহ উভয় পক্ষের অন্তত ১২জন আহত হয়েছিল।

রাত সোয়া ৯টায় এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত এলাকায় উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করলেও পুলিশ বলছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।