ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১

বোনকে ধর্ষণের চেষ্টা করায় ছেলেকে হত্যা করলো বাবা-মা

প্রকাশ: ২০২১-০১-০৯ ১৫:৫১:৫০ || আপডেট: ২০২১-০১-০৯ ১৫:৫১:৫০

নিউজ ডেস্কঃ

রাতে মদ খেয়ে বাড়িতে গিয়ে আপন বোনকে ধর্ষণ চেষ্টা করে মো. হাসান মিয়া নামের ২০ বছরের এক যুবক। এ সময় ছেলেকে মারধর করে বাবা-মা। একপর্যায়ে মৃত্যু হলে তাকে ডোবায় ফেলে দেয় পরিবারের সদস্যরা।

মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৯ জানুয়ারি (শনিবার) সকালে পুলিশ নিহত হাসান মিয়ার বাবা মো. শামীম শিকদার (৪২), মা হাসিনা বেগম (৩৬) ও বোনকে গ্রেফতার করেছে।এর আগে শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে বাড়ির পাশের ডোবা থেকে হাসানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

হত্যা করে মরদেহটি ডোবায় ফেলে দেয়ার ১৭ দিন পর উদ্ধার করা হয়। পচা-দুর্গন্ধের খোঁজ করতে গিয়ে অর্ধগলিত মরদেহের সন্ধান পায় তার স্বজনরা। এরপর পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী।

মুন্সীগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া সার্কেল) খন্দকার আশফাকুজ্জামান জানান, নিখোঁজের ১৭ দিন বাড়ির পাশের ডোবা থেকে মাদকসেবী হাসান মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে নিখোঁজ সন্তানের ব্যাপারে পরিবারের কেউ পুলিশ বা অন্য কাউকে কিছুই জানায়নি। তখন পরিবারের দিকেই পুলিশের সন্দেহ ঘনীভূত হয়।

তিনি বলেন, এক পর্যায়ে পরিবারের আরেক ছেলে ও মামলার বাদী হোসেন মিয়া (১৮) পুলিশের কাছে পুরো ঘটনা তুলে ধরে। সে জানায় ২১ ডিসেম্বর রাতে বাথরুমে যাওয়ার জন্য নিজ ঘর থেকে তার বোন বের হলে পাশের ঘরে থাকা তার বড় ভাই মাদকাসক্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। বোনের চিৎকারে মা ও বাবা বেরিয়ে এসে হাসানকে মারধর করে। এক পর্যায়ে বাবা বালিশ-চাপা দিলে সে মারা যায়।

পুলিশ আরও জানায়, রবিবার গ্রেফতার তিনজনকে আদালতে পাঠানো হবে।